নিউইয়র্কে সরকার বিরোধীদের সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছেন মতিউর রহমান ক্ষুব্ধ আওয়ামী পরিবারের অবাঞ্চিত ঘোষণা

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৫ মে ২০১৯, ৮:২৮ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 7668 বার
নিউইয়র্কে সরকার বিরোধীদের সঙ্গে  ঘুরে বেড়াচ্ছেন মতিউর রহমান ক্ষুব্ধ আওয়ামী পরিবারের অবাঞ্চিত ঘোষণা

আব্দুল হামিদ, নিউইয়র্ক থেকে
প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান নিউইয়র্কে সরকার বিরোধী লোকজনের সঙ্গে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সরকারের কঠোর সমালোচনা বা সরকারকে বেকায়দায় ফেলানোর ফান্দি-ফিকিরে ব্যস্ত থাকা লোকজনের সঙ্গে তিনি বৈঠকের পর বৈঠক করেছেন। এরই মধ্যে বিতর্কিত সাংবাদিক মনির হায়দার এবং সাংবাদিক সাহেদ আলেমের সঙ্গে মতিউর রহমানের ঘনিষ্ট ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সাংবাদিক সাহেদ আলমের দামী গাড়ীতে করে মতিউর রহমান বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছেন। সাহেদ আলম গাড়ী চালাচ্ছেন, পাশে বসে আছেন মতিউর রহমান এবং পেছনে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছেন এখানকার আরেক বিতর্কিত সাংবাদিক ইব্রাহিম চৌধুরী খোকন। সেই ছবি এখন নিউইয়র্কের প্রগতিশীল ও স্বাধীনতার স্ব-পক্ষের শক্তির নেতৃবৃন্দের হাতে হাতে। ঢাকার একটি টেলিভিশন চ্যানেলের নিউইয়র্ক অফিস ও এখানকার একটি বিতর্কিত টেলিভিশনে মতিউর রহমানের একটি দীর্ঘ সাক্ষাৎকার রেকর্ড করা হয়েছে।
একটি অসমর্থিত সূত্র বলছে, মতিউর রহমান বাংলাদেশের বিতর্কিত সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বা এসকে সিনহার সঙ্গে বৈঠকপর্বও সেরে ফেলেছেন। মতিউর রহমানের বিতর্কিত এ কমকান্ডে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী পরিবার ব্যাপক ক্ষুব্ধ হয়েছে। সংগঠনের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান মতিউর রহমানকে নিউইয়র্কে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছেন। তিনি যেখানে মতিউর রহমানকে পাওয়া যাবে সেখানে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
সূত্র জানায়, একটি সেমিনারে যোগ দিতে তিন দিন আগে নিউইয়র্কে আসেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান। এখানে এসে তিনি প্রথম আলো উত্তর আমেরিকার আবাসিক প্রতিনিধি ইব্রাহীম চৌধুরী খোকনের তত্বাবধানে রয়েছেন। নিউইয়র্কে এসেই মতিউর রহমান বৈঠক করেন সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী বিতর্কিত সাংবাদিক মনির হায়দার ও সাংবাদিক সাহেদ আলমের সঙ্গে। তারা এই দুইজনকে নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন এবং মধ্যরাত পর্যন্ত তারকা রেস্টুরেন্টে বৈঠক করছেন। ইতোমধ্যে মতিউর রহমানের সঙ্গে একটি হাসামাখা অন্তরঙ্গ ছবি ফেইসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এছাড়া সাহেদ আলমের সঙ্গে দামী গাড়ীতে করে ঘুরে বেড়ানোর ছবি সাহেদ আলম নিজের ফেইসবুকে আপলোডও করেছেন। এতে দেখা যায়, ড্রাইভিং সিটে বসে আছেন সাহেদ আলম, পাশের সিটে বসে আছেন মতিউর রহমান। পেছন থেকে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছেন ইব্রাহিম চৌধুরী খোকন। তিনজনের হাস্যোজ্জ্বল ছবি এখন ভাইরাল। তবে সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহার সঙ্গে বৈঠক এবং দুটি টেলিভিশনের স্টুড়িতে রেকর্ড করার সময় তোলা ছবি দুটি প্রকাশ না করতে মতিউর রহমান অনুরোধ করেন বলে জানা গেছে।
সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহাকে দিয়ে বই লেখানোর অর্থ লেনদেনের সঙ্গে যাদের নাম প্রকাশ পেয়েছিল তাদের সঙ্গে নিউইয়র্কে মতিউর রহমানের ঘনিষ্ট যোগাযোগ এবং ঘুরে বেড়ানোর ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পাওয়ার পর ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছেন আওয়ামী লীগের নেতারা।
তাদের একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমরা আগেই বলেছিলাম। ইব্রাহিম চৌধুরী, মনির হায়দার, সাহেদ আলম এবং মীর কাসেম আলীর মালিকানাধীন একটি টেলিভিশন চ্যানেলের মালিকের তত্ত্বাবধানে সিনহার বইটি লেখানো হয়েছিল সেটির প্রমাণ হাতে নাতে মিলেছে। কারণ মতিউর রহমান এখানে এসে তাদের সঙ্গেই ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তাদের সঙ্গেই বৈঠক করেছেন। এ জন্য মতিউর রহমানকে নিউইয়র্কে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১৯ মে জ্যাকসন হাইটসের বেলোজিনোতে যে ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে সেটি প্রগতিশীলরা বর্জন করুক।
তিনি বলেন, মতিউর রহমানের আগমনকে ঘিরে নিউইয়র্কে একটি সুধি সমাবেশের আয়োজন করার কথা ছিল। কিন্তু জামায়াতীদের ছাপে এবং পৃষ্টপোষকতার কারণে এটিকে ইফতার মাহফিলে রুপান্তরিত করা হয়েছে। এ কাজে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন ইব্রাহীম চৌধুরী খোকন নিজেই। প্রথম আলো উত্তর আমেরিকায় ব্যর্থতা ঢাকতে ইব্রাহীম চৌধুরী খোকন মতিউর রহমানকে দেখানোর জন্য বেলোজিনোতে এ অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেছেন, যেখানে তিনি নিউইয়র্কের সব গুরুত্বপূর্ণ লোকদের জমায়েত করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন।
সূত্র জানায়, প্রথম দিকে জামায়াতীদের একটি চাপ ছিল এই ইফতার মাহফিলে আওয়ামী লীগ বা প্রগতিশীলদের দাওয়াত না দেয়ার জন্য। এ লক্ষ্যেই চলছিল সব প্রস্তুতি। এমনকি বেছে বেছে জামায়াতী ঘরনার সাংবাদিকদেরও অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেয়া হয়েছিল। কিন্তু দুই দিন মতিউর রহমানের কর্মকান্ডের খবর নিউইয়র্কে প্রচার হওয়ায় ইব্রাহীম চৌধুরী খোকন গংরা নতুন করে দাওয়াতের তালিকা সাজাচ্ছেন যেখানে প্রগতিশীল এমনকি কয়েকজ সনাতনধর্মালম্বীকেও উপস্থিত করার উদ্যোগ নিয়েছেন।
আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, আমরা প্রথম আলোর ইফতার বর্জন করবো। কারণ জামায়াতের পৃষ্ঠপোষকতা বা জামায়াতপন্থীদের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে ঘুরে বেড়ানোরা লোকজন যে টেবিলে বসবেন সে টেবিলে বসে ইফতার করব না। এ জন্য আমরা মতিউর রহমানকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছি। তার সব কর্মকান্ডের প্রতি দৃষ্টি রাখছি। পাশাপাশি সরকারের প্রতি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানাচ্ছি।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *